বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩৮ অপরাহ্ন

চীনে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২৬০০ ছাড়ালো

চীনে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২৬০০ ছাড়ালো

চীনে সোমবার ভয়াবহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৭১ জন মারা গেছেন। এটি মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটিতে একদিনে এটিই সবচেয়ে কম মৃত্যুর ঘটনা। এতে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে মোট ২৬৬৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন বলে জানিয়েছে ‘দ্য স্ট্রেইটস টাইমস’।

মঙ্গলবার চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাত দিয়ে সিঙ্গাপুরের ওই সংবাদ মাধ্যমটি জানায়, দেশটিতে সোমবার আরও ৫০৮ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে নয়জন ছাড়া বাকি সবাই হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা। গত ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ এই প্রদেশের উহান নগরী থেকেই এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটে।

সোমবার আরও পাঁচ শতাধিক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ফলে চীনে এই ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭৭,৬৫৮তে গিয়ে দাঁড়ালো। তবে দেশটিতে মৃত্যু ও আক্রান্ত হওয়ার পরিমাণ বিগত দিনগুলোর তুলনায় বেশ কমেছে। আর চীনে করোনার সংক্রমণ কমছে বলে স্বীকার করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও।

তবে চীনে করোনা কিছুটা দুর্বল হলেও দক্ষিণ কোরিয়ায় হু হু করে বাড়ছে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা। সোমবারও দেশটিতে আরও ৬০ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। ফলে সেখানে করেনাভাইরাসে আক্রান্তে সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৯৩ জন।

সোমবার জাপানের প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের করোনায় আক্রান্ত ৮০ বছর বয়সী এক যাত্রী মারা গেছেন। এ নিয়ে ওই জাহাজে মোট চারজনের মৃত্যু হলো। এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ওই জাহাজের আরও শত শত যাত্রী।

মধ্যপ্রাচ্যেও ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত এতে আক্রান্ত হয়ে ইরানে মারা গেছেন মোট ১২ জন। এছাড়া ইরাক, কুয়েত, বাহরাইন, ওমান ও আফগানিস্তানেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। এ অবস্থায় পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সোমবার ইরান সফরে গেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি প্রতিনিধি দল।

প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বরে চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। মহামারির আশঙ্কায় বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ ইতোমধ্যেই চীন থেকে নিজ দেশের নাগরিকদের সরিয়ে নিয়েছে। মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমিত হওয়া এ ভাইরাস ঠেকাতে চীন-ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, জাপানসহ বেশ কয়েকটি দেশ।

পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম দশা চীনা চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের। শুধু চীন নয়, বিশ্ব জুড়ে বড় বড় গবেষকরা নেমে পড়েছেন নোভেল করোনা রুখে দেওয়ার ওষুধ তৈরিতে। কিন্তু এখনও এই ভাইরাসের কোনও প্রতিষেধক বা ওষুধ আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। এ নিয়ে উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও।

ইতিমধ্যে করোনাভাইরাসকে বিশ্ববাসীর জন্য ‘মারাত্মক হুমকি’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থার মহাপরিচালক ইথিওপিয়ার টেডরস আধানম গেব্রিয়াসেস বলেছেন, এ ভাইরাসটি ‘যেকোনো সন্ত্রাসবাদী পদক্ষেপের চেয়েও শক্তিশালী’হতে পারে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




আমাদের ভিজিটর

  • 208,018 জন ভিজিট করেছেন
© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com

Design and Developed By Sarjan Faraby