মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন

টমেটোর ব্যাগে হাত ঢুকাতেই বেরিয়ে এলো জ্যান্ত সাপ…

টমেটোর ব্যাগে হাত ঢুকাতেই বেরিয়ে এলো জ্যান্ত সাপ…

ব্যাগভর্তি টমেটো কিনে বাজার থেকে ফিরছিলেন এক অস্ট্রেলীয় নারী মারিসা ড্যাভিসন। নিউ সাউথ ওয়েলসের বিপণিবিতান উলওর্থ থেকে শুক্রবার চার কেজি টমেটো কেনেন তিনি।

এর পর বাসায় ফিরে যখন ব্যাগ থেকে টমেটো বের করতে যাচ্ছিলেন, তখন একটি জীবিত সাপ দেখতে পান তিনি। এতে মারাত্মক আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তিনি।- খবর এনডিটিভির

মারিসা বলেন, আমি ব্যাগটি খুললাম। দুটি টমেটো বের করে নিয়ে এলাম। নাহ, আমার তিনটি দরকার। আরেকটি নিয়ে আসতে আমি হাত ঢুকালাম। কিন্তু সেটি লাফ দিয়ে বেরিয়ে এলো।

তিনি বলেন, ব্যাগ থেকে বের হয়েই সাপটি গড়িয়ে গড়িয়ে আমার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে চেইসের দিকে যাচ্ছিল। জন্মগতভাবেই তার হার্টে সমস্যা রয়েছে।

কাজেই এক মুহূর্ত বিলম্ব না করেই সাপটিকে আঘাত করেন ওই নারী এবং সেটি মারা যায়। তিনি জানান, ছেলেকে আমাকে নিজের কাছে টেনে নিয়ে লাঠি দিয়ে সাপটির মাথায় আঘাত হানি।

‘ঘটনাটি আমাকে মারাত্মকভাবে ভয় পাইয়ে দিয়েছে। আমি ঘুমাতে পারছি না।’

ঘটনাটি সামাজিকমাধ্যমে শেয়ার করেন ওই অস্ট্রেলীয় নারী। জবাবে ওই বিপণিবিতানটি বলছে, আমরা ঘটনাটির তদন্ত করছি। আপনার পটেটোর ব্যাগে যা পেয়েছেন, তা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন।

টমেটোর ব্যাগে হাত ঢুকাতেই বেরিয়ে এলো জ্যান্ত সাপ…

ব্যাগভর্তি টমেটো কিনে বাজার থেকে ফিরছিলেন এক অস্ট্রেলীয় নারী মারিসা ড্যাভিসন। নিউ সাউথ ওয়েলসের বিপণিবিতান উলওর্থ থেকে শুক্রবার চার কেজি টমেটো কেনেন তিনি।

এর পর বাসায় ফিরে যখন ব্যাগ থেকে টমেটো বের করতে যাচ্ছিলেন, তখন একটি জীবিত সাপ দেখতে পান তিনি। এতে মারাত্মক আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তিনি।- খবর এনডিটিভির

মারিসা বলেন, আমি ব্যাগটি খুললাম। দুটি টমেটো বের করে নিয়ে এলাম। নাহ, আমার তিনটি দরকার। আরেকটি নিয়ে আসতে আমি হাত ঢুকালাম। কিন্তু সেটি লাফ দিয়ে বেরিয়ে এলো।

তিনি বলেন, ব্যাগ থেকে বের হয়েই সাপটি গড়িয়ে গড়িয়ে আমার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে চেইসের দিকে যাচ্ছিল। জন্মগতভাবেই তার হার্টে সমস্যা রয়েছে।

কাজেই এক মুহূর্ত বিলম্ব না করেই সাপটিকে আঘাত করেন ওই নারী এবং সেটি মারা যায়। তিনি জানান, ছেলেকে আমাকে নিজের কাছে টেনে নিয়ে লাঠি দিয়ে সাপটির মাথায় আঘাত হানি।

‘ঘটনাটি আমাকে মারাত্মকভাবে ভয় পাইয়ে দিয়েছে। আমি ঘুমাতে পারছি না।’

ঘটনাটি সামাজিকমাধ্যমে শেয়ার করেন ওই অস্ট্রেলীয় নারী। জবাবে ওই বিপণিবিতানটি বলছে, আমরা ঘটনাটির তদন্ত করছি। আপনার পটেটোর ব্যাগে যা পেয়েছেন, তা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com

Design and Developed By Sarjan Faraby