শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:১৪ পূর্বাহ্ন

প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীর সর্বনাশ, বিয়ের কথা বলতেই পিটুনি

প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীর সর্বনাশ, বিয়ের কথা বলতেই পিটুনি

নাটোরের সিংড়ায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমনকি বিয়ে করতে বলায় শারীরিকভাবে নির্যাতনও করা হয়েছে ওই তরুণীকে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রেমিক জিহাদকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার জিহাদ উপজেলার তেরোবাড়িয়া গ্রামের আব্দুল আলীমের ছেলে ও সিংড়া বাজারের কসমেটিক ব্যবসায়ী বলে জানা গেছে। শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, ওই তরুণী নারী ওয়ার্ডের মেঝেতে শুয়ে কাতরাচ্ছেন।

সিংড়া থানা পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, প্রেমের ফাঁদে ফেলে সিংড়ার ওই তরুণীকে একাধিকবার নির্যাতন করেন প্রতিবেশী যুবক জিহাদ। গত বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জিহাদের দোকানে গিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেন ওই তরুণী। এতে জিহাদ রাগান্বিত হয়ে তাকে বেধড়ক মারপিট করে পালিয়ে যান।

আহত ওই তরুণী অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আমাকে শুধু ব্যবহার করা হয়েছে। বিয়ের জন্য মোটা অঙ্কের টাকাও দাবি করেছে জিহাদ। আমি একটা মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে। এতগুলো টাকা কোথায় পাব।

সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নারী ওয়ার্ডের সিনিয়র নার্স মনোয়ারা খাতুন বলেন, ওই তরুণীর শরীরে মারধরের দাগ রয়েছে?

সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ইসরাত জাহান জানান, আহত তরুণীকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার শরীরে বেশ ব্যাথা রয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিংড়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব হোসেন জানান, এ ঘটনায় থানায় নারী নির্যাতনের মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এখন অভিযোগকারী তরুণীর ডাক্তারি রিপোর্ট হাতে পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com

Design and Developed By Sarjan Faraby