বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:০৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞাপনে প্রশংসাটা আমি খুব কমই পেয়েছি: পূর্ণিমা

বিজ্ঞাপনে প্রশংসাটা আমি খুব কমই পেয়েছি: পূর্ণিমা

ঢাকাই সিনেমার নন্দিত তারকা চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। দীর্ঘ দুই যুগ ধরে দাপটের সাথে অভিনয় করে যাচ্ছেন এখনও। তবে সিনেমার এই নায়িকাকে অনেকদিন ধরেই বড় পর্দায় দেখা যায় না। তবে মাঝেমধ্যে দেখা মিলে নাটকে কিংবা বিজ্ঞাপনে।

সম্প্রতি তিনটি বিজ্ঞাপনের কাজ শেষ করলেন জনপ্রিয় এই চিত্রনায়িকা। কংকা রেফ্রিজারেটর, মিস্টার নুডলস ও এক্সপার্ট ডিশ ওয়াশ এই তিনটি বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হয়েছেন পূর্ণিমা। এরমধ্যে মেসবাউর রহমান সুমনের পরিচালনায় কংকা রেফ্রিজারেটরের বিজ্ঞাপনটি গতকাল থেকে প্রচারে এসেছে। নাফিস রেজা পরিচালিত মিস্টার নুডলস ও কলকাতার সৌনক মিত্রের পরিচালনায় এক্সপার্ট ডিশ ওয়াশের বিজ্ঞাপন দুটি খুব শিগগিরই প্রচারে আসবে বলে জানান চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা।

বিজ্ঞাপনে কাজ প্রসঙ্গে এই নায়িকা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, এখন অন্যান্য কাজের চেয়ে বিজ্ঞাপনই করা হয়েছে বেশি। তিনটি বিজ্ঞাপনের কাজ করেছি, কংকা রেফ্রিজারেটরটা প্রচারে এসেছে। সত্যি কথা বলতে এই কাজটা থেকে এত সাড়া ও প্রশংসা পাচ্ছি যা বলার বাইরে।

অবাক করা বিষয় হলো, সিনেমা কিংবা নাটক থেকে কাজের জন্য অনেক প্রশংসা পেয়েছি আমি। বিজ্ঞাপন থেকে সেইদিক থেকে কখনও এতটা প্রশংসা পাই নি। বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে প্রশংসাটা আমি খুব কমই পেয়েছি। এই প্রথমবার এই বিজ্ঞাপনটি থেকে আমি এতটা সাড়া পেয়েছি। এটা দেখার পর অনেকেই আমাকে ফোনে বা ম্যাসেজে প্রশংসা জানাচ্ছেন। এটা সত্যি আমার জন্য আনন্দের।

সিনেমার প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন, নতুন কোন সিনেমার নেই আপাতত। আর একটা সিনেমার ‘গাঙচিল’ কাজ করছি তো করেই যাচ্ছি, শেষ হচ্ছে না। এই মাসেও কিছু ডেট দেওয়া ছিল কিন্তু এখন চারিদিকে করোনাভাইরাস আতঙ্কে সেগুলোও বাতিল হয়েছে। সম্ভবত আগামী মাস থেকে আবার সেটার কাজ করবো।

নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল পরিচালিত ‘গাঙচিল’ ও ‘জ্যাম’ নামে দুটি ছবি মুক্তির অপেক্ষায় আছে পূর্ণিমার। তার মধ্যে ‘গাঙচিল’ ছবিতে পূর্ণিমার নায়ক ফেরদৌস এবং ‘জ্যাম’ ছবিতে আরিফিন শুভ।

জাকির হোসেন রাজুর পরিচালনায় ১৯৯৭ সালে রিয়াজের বিপরীতে ‘এ জীবন তোমার আমার’ ছবি দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে তার। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে পূর্ণিমা উপহার দিয়েছেন বহু ব্যবসাসফল সিনেমা। রিয়াজ, রুবেল, মান্না, আমিন খান, ফেরদৌস, শাকিব খানদের মতো ইন্ডাস্ট্রির সেরা নায়কদের বিপরীতে কাজ করে সফল হয়েছেন। তার উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে আছে- ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘হৃদয়ের কথা’, ‘জামাই শ্বশুর’, ‘স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ’, ‘যোদ্ধা’, ‘ভালোবাসার লাল গোলাপ’, ‘শাস্তি’ ও ‘শোভা’। ২০১০ সালে ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না‘ ছবির জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি সেরা অভিনেত্রী হিসেবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




আমাদের ভিজিটর

  • 208,018 জন ভিজিট করেছেন
© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com

Design and Developed By Sarjan Faraby