শুক্রবার, ১০ Jul ২০২০, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মুলাদীতে বসতবাড়িতে ‘হামলা-ভাংচুর-লুট, কুপিয়ে ও টেঁটাবিদ্ধ’ করে জখম ১১ জন মেরিন ড্রাইভ সড়কে ৯০ পিচ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট সহ আটক ১ বড় কর্তা ঘুষ চাইলে আমাকে জানাবেন, আইজিপি বেনজীর আহমেদ করোনা কালে রেস্তোরাঁয় এলো ‘মাস্ক পরোটা’ নেট দুনিয়ায় তোলপাড় সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ বরিশাল মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে প্রেরিত ক্রেস্ট প্রধান ও আলোচনা অনুষ্ঠান বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ২১৮ জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, সুস্থ ৮৫ জন করোনা মোকাবিলায় ‘সাহস রাখতে হবে ও স্বাস্থ্যবিধি’ মানতে হবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রেডিট কার্ড জালিয়াত চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছেন সিআইডির সাইবার পুলিশ আমরাই চোর ধরি, আমাদেরকেই দোষারোপ করা হয় : সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদারীপুরে এক নববধূকে ‘ধর্ষণের অভিযোগ’ ৩ যুবক গ্রেপ্তার এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ‘ভিডিও ধারণ’ যুবক আটক খুলনায় আজ থেকে খুলছে দোকান-পাট -মার্কেট-শপিংমল বাংলাদেশের করোনার সার্টিফিকেট নিয়ে ‘জালিয়াতির খবর’ ইতালির পত্রিকায় বরিশালে পুলিশ সদস্যদের বাবার মতো আগলে রেখেছেন পুলিশ কমিশনার, মোঃ শাহাবুদ্দিন খান নিখোঁজের ১৮ ঘন্টা পর মাদ্রাসা ছাত্রী আয়শার লাশ উদ্ধার, ৪ জন গ্রেফতার বাতাসে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ পেয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা রিজেন্টে হাসপাতালে চেয়ারম্যান সাহেদের ‘ব্যাংক হিসাব’ তলব বনারীপাড়ায় শেখ হাসিনা সেনানিবাসের উদ্যোগে গর্ভবতী মায়েদের ‘বিনামূল্যে চিকিৎসা’ প্রদান বরিশালে নতুন করে ১১৪ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট ৩৬৫১ জন দানবের বাম্পার ফলন হয় কেন? আরিফ আহমেদ মুন্না !
হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের জামাত আদায় করা হল

হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের জামাত আদায় করা হল

অনলাইন ডেস্কঃ চারিদিকে শুধু পানি আর পানি। ডুবে গেছে দিগন্ত জোড়া ফসলের মাঠ ও সবজিক্ষেত। ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে আঘাতে বেড়িবাঁধ ভেঙে খুলনার কয়রা উপজেলায় পানিতে চারিদিকে শুধু থৈ থৈ করছে। এক চিলতে শুকনো জায়গা নেই।

এর মধ্যে এলাকাবাসীর ঈদের দিনটি কেটেছে ভিন্ন রকম।

সুপার সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের ফলে পানিতে তলিয়ে গেছে উপজেলার ৮০ শতাংশ এলাকা। আম্ফানের তাণ্ডবে কয়রায় ১২১ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের মধ্যে ২১ জায়গায় ৪০ কিঃ মিঃ অধিক বাঁধ ভেঙে গেছে।

ফলে আজ (সোমবার ২৫ মে) ঈদুল ফিতরের দিন সেই ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ নির্মাণে স্বেচ্ছাশ্রমে অংশ নিয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়েই আদায় করেছেন পবিত্র ঈদের নামাজ। সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার দুই নম্বর কয়রা নদী ভাঙন পাড়ে এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের জামাত আদায়। ঈদের নামাজে ইমামতি করেছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাওলানা আ খ ম তমিজ উদ্দিন।

 

দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়েই নামাজ শেষে সেমাই খেয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ তৈরি করতে নামেন এলাকাবাসী। দুপুরে তাদের জন্য আয়োজন করা হয়েছে খিচুড়ির। এভাবেই ঈদের দিন বাঁধ মেরামতে সময় পালন করছেন আইলা ও আম্ফানে ক্ষতবিক্ষত হওয়া কয়রার মানুষ। নামাজ শুরুর আগে কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম শফিকুল ইসলাম জনগণের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন।

বক্তব্যে তিনি লণ্ডভণ্ড কয়রার দুর্বিষহ অবস্থা তুলে ধরেন এবং মজবুত বাঁধ নির্মাণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এছাড়া স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ বাঁধার কাজে অংশগ্রহণ করার জন্য এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানান। হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়েই ঈদের জামাত আদায়। এস এম শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, এবার অন্যরকম এক ঈদ উদযাপন করছি আমরা। স্বেচ্ছাশ্রমে বেড়িবাঁধ নির্মাণে এসে জোয়ারের পানি যখন হাঁটুপানি পর্যন্ত পৌঁছায় তখই শুরু হয় ঈদের নামাজ। প্রায় ছয় হাজার মানুষ নামাজে অংশ নেন। আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে সবার জন্য ঈদের সেমাইয়ের ব্যবস্থা করেছি। এছাড়া দুপুরে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে খিচুড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

কয়রা পাউবোর ১৩/১৪-১ ও ১৩/১৪-২ নম্বর পোল্ডারের (চারদিকে নদীবেষ্টিত দ্বীপ অঞ্চল) অন্তর্ভুক্ত। এর পূর্ব পাশে সুন্দরবনের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে শাকবাড়িয়া নদী, দক্ষিণ-পশ্চিম পাশে কপোতাক্ষ ও উত্তর পাশে রয়েছে কয়রা নদী। ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাতে খুলনার ৯টি উপজেলার ৮৩ হাজার ৫৬০টি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর ফলে ক্ষতিতে পড়েছেন সাড়ে ৪ লাখ মানুষ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছে কয়রা উপজেলায়, সেখানে ৪০ কিঃ মিঃ বাঁধ ভেঙে যাওয়ার ফলে ৮০ শতাংশ এলাকাই প্লাবিত হয়ে পড়েছে। অসহায় হয়ে পড়েছেন প্রায় সাত লাখ মানুষ।

আম্ফানের আঘাতে কয়রার ৪টি ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ২১টি পয়েন্টে নদী ভাঙনের কারণে এসব এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ঝড় ও বন্যার কারণে কয়রা উপজেলার প্রায় পাঁচ হাজার হেক্টর জমির ফসল লবণ পানিতে প্লাবিত হয়েছে। বাঁধ ভেঙে জোয়ারের ছোট-বড় পাঁচ হাজার মাছের ঘের ভেসে গেছে।

 

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com
Design By Rana