শুক্রবার, ১০ Jul ২০২০, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক সাহেদের বাবা করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই মুলাদীতে বসতবাড়িতে ‘হামলা-ভাংচুর-লুট, কুপিয়ে ও টেঁটাবিদ্ধ’ করে জখম ১১ জন মেরিন ড্রাইভ সড়কে ৯০ পিচ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট সহ আটক ১ বড় কর্তা ঘুষ চাইলে আমাকে জানাবেন, আইজিপি বেনজীর আহমেদ করোনা কালে রেস্তোরাঁয় এলো ‘মাস্ক পরোটা’ নেট দুনিয়ায় তোলপাড় সজীব ওয়াজেদ জয় পরিষদ বরিশাল মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে প্রেরিত ক্রেস্ট প্রধান ও আলোচনা অনুষ্ঠান বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ২১৮ জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, সুস্থ ৮৫ জন করোনা মোকাবিলায় ‘সাহস রাখতে হবে ও স্বাস্থ্যবিধি’ মানতে হবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রেডিট কার্ড জালিয়াত চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছেন সিআইডির সাইবার পুলিশ আমরাই চোর ধরি, আমাদেরকেই দোষারোপ করা হয় : সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদারীপুরে এক নববধূকে ‘ধর্ষণের অভিযোগ’ ৩ যুবক গ্রেপ্তার এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ‘ভিডিও ধারণ’ যুবক আটক খুলনায় আজ থেকে খুলছে দোকান-পাট -মার্কেট-শপিংমল বাংলাদেশের করোনার সার্টিফিকেট নিয়ে ‘জালিয়াতির খবর’ ইতালির পত্রিকায় বরিশালে পুলিশ সদস্যদের বাবার মতো আগলে রেখেছেন পুলিশ কমিশনার, মোঃ শাহাবুদ্দিন খান নিখোঁজের ১৮ ঘন্টা পর মাদ্রাসা ছাত্রী আয়শার লাশ উদ্ধার, ৪ জন গ্রেফতার বাতাসে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ পেয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা রিজেন্টে হাসপাতালে চেয়ারম্যান সাহেদের ‘ব্যাংক হিসাব’ তলব বনারীপাড়ায় শেখ হাসিনা সেনানিবাসের উদ্যোগে গর্ভবতী মায়েদের ‘বিনামূল্যে চিকিৎসা’ প্রদান
মদিনার ইহুদিদের সঙ্গে নবী করিম (সাঃ) এর ১২ চুক্তি

মদিনার ইহুদিদের সঙ্গে নবী করিম (সাঃ) এর ১২ চুক্তি

হিজরতের পর নবী করিম রাসুল (সাঃ) মুসলমানদের মধ্যে চিন্তা, বিশ্বাস, রাজনীতি ও ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসের মাধ্যমে একটি নতুন সমাজের ভিত্তি স্থাপন করেন। এরপর তিনি অমুসলিমদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের উদ্যোগ নেন, নবী করিম (সা.) চাচ্ছিলেন, সব মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করুক এবং মদিনা ও আশপাশের এলাকার মানুষ একটি সুস্থ প্রশাসনের আওতাভুক্ত হোক, তিনি উদারতা ও ন্যায়পরায়ণতার মাধ্যমে এমন আইন প্রণয়ন করেন, বর্তমানে যার কোনো দৃষ্টান্ত খুঁজে পাওয়া যায় না।

মদিনার পার্শ্ববর্তী লোকেরা ছিল ইহুদি। গোপনে এরা মুসলমানদের সঙ্গে শত্রুতা করলেও প্রকাশ্যে তারা মিত্রতা দেখাত।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা (সাঃ) তাদের সঙ্গে একটি চুক্তিতে উপনীত হলেন, সেই চুক্তিতে ইহুদিদের তাদের ধর্ম পালনে স্বাধীনতা ও জীবন-সম্পদের নিরাপত্তা দেওয়া হয়।

মদিনার ইহুদিদের সঙ্গে নবী করিম (সাঃ) ১২ চুক্তি।

চুক্তির দফাসমূহ ছিল নিম্নরূপ :-

১/  বনু আউফের ইহুদিরা মুসলমানদের সঙ্গে মিলিত হয়ে একই উম্মত (একই জাতি) হিসেবে বিবেচিত হবে, ইহুদি ও মুসলমানরা নিজ নিজ দ্বিনের ওপর আমল করবে, বনু আউফ ছাড়া অন্য ইহুদিরাও একই রকমের অধিকার লাভ করবে।

২/  ইহুদিরা নিজেদের সমুদয় ব্যয়ের জন্য দায়ী হবে এবং মুসলমানরা নিজেদের ব্যয়ের জন্য পৃথকভাবে দায়ী হবে।

৩/  এই চুক্তির আওতাভুক্তদের কোনো অংশের সঙ্গে যারা যুদ্ধ করবে সবাই সম্মিলিত ভাবে তাদের প্রতিহত করবে।

৪/  এই চুক্তির অংশীদাররা সবাই পরস্পরের কল্যাণ কামনা করবে, তবে সেই কল্যাণ কামনা ও সহযোগিতা ন্যায়ের ওপর প্রতিষ্ঠিত হতে হবে, অন্যায়ের ওপর নয়।

৫/  কোনো ব্যক্তি তার মিত্রের কারণে অপরাধী হবে না।

৬/  মজলুমকে সাহায্য করা হবে।

৭/  যত দিন যুদ্ধ চলতে থাকবে, তত দিন ইহুদিরাও মুসলিমদের সঙ্গে যুদ্ধের ব্যয়ভার বহন করবে।

৮/ এই চুক্তির অংশীদারদের জন্য মদিনায়

দাঙ্গা——হাঙ্গামা ও রক্তপাত নিষিদ্ধ থাকবে।

৯/  এই চুক্তির অন্তর্ভুক্তদের মধ্যে কোনো নতুন সমস্যা দেখা দিলে বা ঝগড়া-বিবাদ হলে আল্লাহর আইন অনুযায়ী নবী করিম রাসুল (সাঃ) তার মীমাংসা করবেন।

১০/  কোরাইশ ও তাদের সাহায্য কারীদের আশ্রয় প্রদান করা হবে না।

১১/ ইয়াসরেবের (মদিনার) ওপর কেউ হামলা করলে সেই হামলা মোকাবেলায় পরস্পর পরস্পরকে সহযোগিতা করবে। সব পক্ষ নিজ-নিজ অংশের প্রতিরক্ষার দায়িত্ব পালন করবে।

১২/  এই চুক্তির মাধ্যমে কোনো অত্যাচারী বা অপরাধীকে আশ্রয় দেওয়া হবে না। (সিরাতে ইবনে হিশাম, ১ম খণ্ড, পৃষ্ঠা ৫০৩, ৫০৪)

এই চুক্তি সম্পাদিত হওয়ার পর মদিনা ও এর আশ-পাশের এলাকা নিয়ে একটি রাষ্ট্র গঠিত হয়, সেই রাষ্ট্রের রাজধানী ছিল ‘মদিনা’।

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) ছিলেন সেই রাষ্ট্রের মহানায়ক, এর মূল কর্তৃত্ব ছিল মুসলমানদের হাতে, এভাবে মদিনা ইসলামী রাষ্ট্রের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। শান্তি ও স্থিতিশীলতার স্বার্থে নবী করিম (সাঃ) পরবর্তী সময়ে অন্য গোত্রের সঙ্গেও এ ধরনের চুক্তি করেন।

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com
Design By Rana