বৃহস্পতিবার, ০৯ Jul ২০২০, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশের করোনার সার্টিফিকেট নিয়ে ‘জালিয়াতির খবর’ ইতালির পত্রিকায় বরিশালে পুলিশ সদস্যদের বাবার মতো আগলে রেখেছেন পুলিশ কমিশনার, মোঃ শাহাবুদ্দিন খান নিখোঁজের ১৮ ঘন্টা পর মাদ্রাসা ছাত্রী আয়শার লাশ উদ্ধার, ৪ জন গ্রেফতার বাতাসে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ পেয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা রিজেন্টে হাসপাতালে চেয়ারম্যান সাহেদের ‘ব্যাংক হিসাব’ তলব বনারীপাড়ায় শেখ হাসিনা সেনানিবাসের উদ্যোগে গর্ভবতী মায়েদের ‘বিনামূল্যে চিকিৎসা’ প্রদান বরিশালে নতুন করে ১১৪ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট ৩৬৫১ জন দানবের বাম্পার ফলন হয় কেন? আরিফ আহমেদ মুন্না ! ঢাকা-বরিশাল-পটুয়াখালী সহ দেশের ১৮টি জেলায় ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছেন, আবহাওয়া দপ্তর সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শাহিনের অকাল মৃত্যুতে ক্যাপ্টেন (অবঃ) এম. মোয়াজ্জেম এর শোক ৮০ শতাংশ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীরই উপসর্গ নেই, ব্রিটিশ জরিপ চট্টগ্রামে কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জাল টাকার বাজার জাতকারী ১টি  চক্র, আটক ১ রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ সহ মোট ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা বরিশালের বাবুগঞ্জে এমপি টিপুর ঈদবস্ত্র বিতরণ করলেন জাপা সভাপতি, কিসলু কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা’ গণমাধ্যমের, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যুদ্ধের গতিতে টিকা উন্নয়নে কাজ করছে চীন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পার্টি, আক্রান্ত হলেই মিলবে মোটা অঙ্কের আর্থিক পুরস্কার করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এলেও সংক্রমণের ভয় নেই, অ্যান্টিবডির চূড়ান্ত ট্রায়াল শুরু বরিশাল শেবাচিমে করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুলিশের এসআই’র মৃত্যু বরিশাল বিভাগে নতুন করে ১১৯ জনের করোনা ভাইরাস শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ৩৫৩৭ জন
করোনাভাইরাসঃ কেন ফি দিয়ে পরীক্ষা করাতে হবে!

করোনাভাইরাসঃ কেন ফি দিয়ে পরীক্ষা করাতে হবে!

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস  সংক্রমনের সন্দেহ হলে বাসা বা বাড়ি থেকেই পরীক্ষা করানো যাবে- সাধারণ মানুষের জন্য এই সুবিধাটি দিয়ে পরিপত্র জারি করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে এভাবে  নমুনা পরীক্ষা করাতে গেলে নির্ধারিত ফি দিতে হবে। সরকারি হাসপাতাল ও বুথে গিয়েও নমুনা পরীক্ষা করানো যাবে আগের মতো। দুই ক্ষেত্রেই ফি দিতে হবে। এতোদিন সরকার বিনা পয়সায় এই স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছিল।

কর্মকর্তারা বলছেন,  বিদেশ থেকে আমদানি করা প্রতিটি কিটের দাম পড়ছে ৩ হাজার টাকা। যদি বাসায় গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়, সে ক্ষেত্রে সব মিলিয়ে একটি পরীক্ষার পেছনে সরকারের মোট খরচ পড়ে যায় প্রায় ৫ হাজার টাকার মতো। তাই ফি যেটা নেয়া হবে তাকে নামমাত্রই বলতে চাইছে কর্তৃপক্ষ।

পরিপত্রে বলা হয়, সরকারি হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় বা বুথে গিয়ে নমুনা পরীক্ষা করালে ফি দিতে হবে ২০০ টাকা। আর বাসায় থেকে নমুনা সংগ্রহ করিয়েপরীক্ষা করালে ৫০০ টাকা ফি দিতে হবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি নিয়ে এই ফি নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এর আগে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আব্দুল মান্নান কালের কণ্ঠকে বলেছিলেন, ‘কারো শরীরে করোনাভাইরাস আছে কি না, তা জানার জন্য আমরা এখন যে নমুনা পরীক্ষা (আরটি-পিসিআর টেস্ট) করছি, তাতে কোনো টাকা নেওয়া হয় না। তবে নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে আমরা একটি ফি নির্ধারণ করেছি।’

করোনা পরীক্ষার জন্য কেন ফি?

করোনা ভাইরাসঃ  পরীক্ষার জন্য কেন ফি নির্ধারণ করা হচ্ছে—এ বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, দুই কারণে ফি নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

একাধিক কর্মকর্তা কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, করোনার কারণে সরকারের আয় কমে গেছে। একেকটি নমুনা পরীক্ষার পেছনে যে টাকা খরচ হয়, বাংলাদেশের মতো দেশে এটি দুই থেকে তিন মাস বিনা মূল্যে করা সম্ভব। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে সম্ভব নয়। দেশে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে

দীর্ঘ মেয়াদে নমুনা পরীক্ষা করতে হবে। এ জন্য সরকার একটি ফি নির্ধারণ করতে যাচ্ছে। দ্বিতীয় কারণ হলো, নমুনা পরীক্ষা করতে গিয়ে এর অপব্যবহার হচ্ছে। অনেকের শরীরে করোনার উপসর্গ না থাকলেও সন্দেহ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা করাচ্ছে। সন্দেহ হলে পরীক্ষা নিরুৎসাহ করার জন্যও সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে।

প্রতিটি কিটের দাম  তিন হাজার টাকা

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, বিদেশ থেকে আমদানি করা প্রতিটি কিটের দাম পড়ছে তিন হাজার টাকা। যদি বাসায় গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়, সে ক্ষেত্রে সব মিলিয়ে একটি পরীক্ষার পেছনে সরকারের মোট খরচ পড়ে যায় পাঁচ হাজার টাকার মতো। প্রতিদিন গড়ে ১২ হাজার থেকে ১৪ হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার। বাকিদের মধ্যে করোনা ভাইরাস  সংক্রমণ ধরা পড়ে না।

এতে সরকারের বিপুল পরিমাণ টাকা অপচয় হয়। সে জন্য যাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের  উপসর্গ আছে এবং কেউ যদি মনে করে করোনা ভাইরাসের  উপসর্গ থাকার আশঙ্কা প্রবল সে ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি নমুনা পরীক্ষা করাতে যাবে।

তবে এক্ষেত্রে পাশের দেশ ভারত, পাকিস্তান, নেপাল এবং আফ্রিকার দেশগুলোতে এখনো তাদের নাগরিকদের বিনা মূল্যেই করোনা ভাইরাসের  নমুনা পরীক্ষা করে যাচ্ছে। ভারতে সরকারি হাসপাতাল ও ল্যাবে করোনা পরীক্ষায় কোনো টাকা নেওয়া হয় না।

বেসরকারিভাবে সাড়ে ৪ হাজার টাকা নেওয়া হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বেশি বেশি পরীক্ষার ওপর জোর দিয়েছেন। কারণ পরীক্ষা বেশি হলে কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস)  রোগী শনাক্ত সহজ হয় এবং তাকে আইসোলেশনে নেওয়া যায়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, সরকারি হাসপাতালে গিয়ে নমুনা পরীক্ষার ফি নির্ধারণ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি নিতে গত সপ্তাহে চিঠি পাঠানো হয়।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব সিরাজুন নূর চৌধুরী  বলেন, করোনা ভাইরাসে  নমুনা পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে একটি প্রস্তাব তাঁরা পেয়েছিলেন। এরপর তাঁরা ইতিবাচক মতামত জানিয়ে দেন।

 

বিনা মূল্যে পরীক্ষার  সুযোগে অপব্যবহার?

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, বর্তমানে সারা দেশে ৬৬টি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৪৮টি সরকারি, ১৮টি বেসরকারি। প্রতিদিন যে পরিমাণ নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে, তার প্রায় ৯০ শতাংশ সরকারি ল্যাবে হচ্ছে। দেশে করোনা সংক্রমণের পর থেকে এখন পর্যন্ত সাত লাখ ১২ হাজার ৯৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে এক লাখ ৩৩ হাজার ৯৭৮ জন। অর্থাৎ মোট টেস্টের ১৮.৮১ শতাংশ পজিটিভ এসেছে। এসব তথ্য তুলে ধরে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, বিনা মূল্যে পরীক্ষা করার সুযোগ থাকায় এর অপব্যবহার হচ্ছে। প্রতিদিন যে পরিমাণ নমুনা পরীক্ষা হয়, তার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশের শরীরে ন্যূনতম উপসর্গ থাকে না।

এতে প্রকৃত আক্রান্তদের নমুনা পরীক্ষা করতে বিলম্ব হচ্ছে। তাঁরা জানান, পরীক্ষার ফির এই টাকা রাষ্ট্রের কোষাগারে চলে যাবে। সেই টাকা সরকার চাইলে স্বাস্থ্য খাতেই খরচ করতে পারবে।

 

‘টাকা নেওয়া কি সংবিধানসম্মত?’

তবে ফি নেওয়া ঠিক হবে না বলে মনে করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব  বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অসম্ভব, হতেই পারে না। এখানে যদি টাকার বিষয়টা আসে, তাহলে দরিদ্র শ্রেণির মানুষ পরীক্ষা করাতে আসবে না। বড়লোকেরা যাদের দরকার, তারা আসবে।’ তিনি প্রশ্ন করেন, ‘টাকা নেওয়ার বিষয়টা কি আমাদের সংবিধানের সঙ্গে যায়?’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com
Design By Rana