শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম
সিটি মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ নি‌জেই বরিশাল নগরীর খাল প‌রিষ্কার করলেন করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১,২৮৫ জন রিকশাচালকের ৬০০ টাকা নিয়ে নেয়ার অভিযোগে পুলিশের ব্যবস্থা পরমাণু বিজ্ঞানী ড. ওয়াজেদ মিয়ার আজ ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী আনসার ও ভিডিপির পক্ষ থেকে ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আবিষ্কার এর উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মধ্যে খাদ্য বিতরণ চরফ্যাশনে ঢালচরে দুর্বৃত্তের আগুনে ২০ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই বরিশালসহ দেশের ৮ বিভাগেই ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আজ ১৬০তম জন্মদিন আজ থেকে দিনে ফেরি চলাচল ‘বন্ধ’ রাতে হবে পণ্যবাহী পরিবহন পারাপার
খুলনায় পানির হাহাকার চারিদিকে – এফ এম বুরহান

খুলনায় পানির হাহাকার চারিদিকে – এফ এম বুরহান

মো: শেখ শহীদুল্লাহ্ আল আজাদ :: সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা আমাদের এই বাংলাদেশ। এদেশে এঁকে বেঁকে বয়ে চলেছে শত শত নদ নদী হাজার হাজার খাল বিল এজন্যই এদেশকে বলা হয় নদী মাতৃক দেশ । এদেশে পানি আমদানি করে আল্লাহর দেয়া বড় নেয়ামত বঙ্গোপসাগর । এদেশের নদ নদী গুলো আজ প্লাস্টিক ও আবর্জনা দিয়ে ভরপুর । ছোট বড় নদী ও খাল আজ শক্তিশালী মানুষের কাছে জিম্মি হয়ে হারিয়ে যাচ্ছে । যে যার মতো শক্তি দিয়ে দখল করে ভরাট করে উধাও করে দিচ্ছে এই প্রাকৃতিক নেয়ামত হারিয়ে যাচ্ছে যুগ যুগ ধরে নদীমাতৃক দেশ খেতাব পাওয়া ঐতিহ্য। যার ফলে ধীরে ধীরে দেখা দিচ্ছে পানি শুন্যতা। গ্রীষ্মের খরতাপে গ্রামের পুকুরগুলা শুকিয়ে যায়। ফলে ভোগান্তি পোহাতে হয় গ্রামের মানুষদের । এদিকে পানির লেয়ার কমে যাওয়ায় পাওয়া যায় না নলকুপেও পানি ।

 

 

 

 

এতে চৈত্রের খরতাপে হাঁপিয়ে উঠছে মানুষ ও প্রাণীকূল। বিশুদ্ধ পানির অভাবে ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন ধরনের রোগের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে। রূপসা, দাকোপ, বটিয়াঘাটা, কয়রা ও পাইকগাছায়। এসব এলাকার অগভীর নলকূপগুলো অধিকাংশই অকেজো। যে কয়েকটি সচল রয়েছে সেগুলোর পানি লবণাক্ত ও আর্সেনিকে ভরা। যার কারণে খাবার পানি আনতে দেড়-দুই কিলোমিটার দূরে যেতে হচ্ছে নারীদের।

 

 

 

 

পানির সমস্যা আছে মহানগরেও নগরবাসীরা জানান, বাসাবাড়িতে খাবার পানি নেই, রান্নার পানি নেই, নেই গোসলের পানি। পানির জন্য অনেকেরই প্রাণ এখন ওষ্ঠাগত। ওয়াসার পানি নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজে ব্যবহার করা হয়। এ পানি পান করা যায় না। এতোদিন নলকূপের পানি পান করেছি। এখন নলকূপে পানি উঠছে না। প্রতিবেশীদের নলকূপ (সাবমার্সিবল পাম্প) থেকে পানি আনতে হচ্ছে। কিন্তু সাবমার্সিবল পাম্পে পানি উঠাতে বিদ্যুৎ ব্যবহার করতে হওয়ায় অনেকে পানি দিতে চান না। বৃষ্টি না হলে পানির স্তর আরও নিচে নামবে এবং তাতে নগরীর ৯০ শতাংশ নলকূপ দিয়ে পানি না ওঠার পরিস্থিতি তৈরি হবে।

 

 

 

 

 

 

খুলনা ওয়াসা কর্তৃপক্ষ জানান মহানগরীর ৩৮ হাজার বাড়িতে ওয়াসা পাইপলাইনে পানি দিচ্ছে। গ্রীষ্ম এলেই ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় অনেক এলাকার নলকূপে পানি পাওয়া যাচ্ছে না। ওয়াসার নিজস্ব নলকূপেও পানি উত্তোলনের পরিমাণ কমেছে। এতে পানির জন্য নগরবাসীকে ও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। পানির জন্য ভোগান্তির কম নেই কৃষকের ও আকাশের দিকে চেয়ে আছেন কৃষকরা। কবে হবে বৃষ্টি। বৃষ্টির অভাবে খেতের ফসল পুড়ে যাচ্ছে।

 

 

 

 

 

মাঠের আধাপাকা ধান শেষ মুহূর্তে এসে নষ্ট হচ্ছে। পুরাপুরি নষ্ট হওয়া ঠেকাতে অনেকে বাধ্য হয়ে আধা পাকা ধান কেটে ফেলছেন। বৃষ্টির অভাবে নতুন করে চাষ করা যাচ্ছে না। ফলে পতিত পড়ে আছে অনেক জমি।

 

 

 

 

যারা সেচ দিয়ে পাট বীজ বুনেছিলেন তারাও পড়ে গেছেন সংকটে। চারা গাছগুলোকে বাঁচাতে সেচের প্রয়োজন। কিন্তু অগভীর (শ্যালো) নলকূপ লেয়ার ফেল করেছে। খাবার পানির জন্যও চলছে হাহাকার।

 

 

 

 

নলকূপে পানি উঠেছে না। যারা মোটর বসিয়েছিলেন তারাও পানি পাচ্ছেন না। একমাত্র সাবমার্সিবল দিয়ে পানি তোলা যাচ্ছে। ফলে মার্সিবল ডিলারের দোকানে বাড়ছে ভিড়, বেড়েছে দাম। সাব মার্সিবল কিনতে পারলেও মিস্ত্রী পাওয়া দুষ্কর হয়ে গেছে। বৃষ্টির জন্য মুসল্লিরা এস্তেস্কার নামাজও পড়ছেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





আমাদের ভিজিটর

  • 61,484 জন ভিজিট করেছেন
© All rights reserved © 2019 ajkercrimetimes.com

Design and Developed By Sarjan Faraby