ঢাকারবিবার , ২ জুন ২০২৪

বরিশালে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পরিবহন কাউন্টারে হামলা, আহত ১০

ক্রাইম টাইমস রিপোর্ট
জুন ২, ২০২৪ ১০:৩৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সংবাদটি শেয়ার করুন....

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশাল নগরীর ৩০ নং ওয়ার্ডের গড়িয়ারপাড় বাজারে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পরিবহন কাউন্টারে সশস্ত্র হামলা করেছে একদল দুষ্কৃতকারী। এতে যুবলীগ নেতাসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

জানা গেছে- নগরীর গড়িয়ারপাড় বাজারে অবস্থিত লোকাল ও দূরপাল্লা পরিবহন কাউন্টার দীর্ঘদিন যাবৎ দেখাশুনা করে আসছে কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান লিটন মোল্লা ও তার লোকজন। পরবর্তীতে ৩০ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম জুয়েলকে গড়িয়ার বাজারে একটি পরিবহন কাউন্টারের বুকিং ক্লার্ক হিসেবে নিয়োগপত্র প্রদান করে বরিশাল জেলা বাস মালিক গ্রুপ। এরই ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার (৩০ মে) সকালে জুয়েল তার কর্মীদের সাথে নিয়ে ওই কাউন্টার পরিচালনা শুরু করেন। কিন্তু হঠা করে লিটন মোল্লার লোকজন অর্তকিত হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি জুয়েল।

সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা যায়, কাউন্টার পরিচালনার খবর পেয়েই কিছুক্ষনের মধ্যে লিটন মোল্লা ও তার লোকজন রামদা, ছুরি, রড নিয়ে জুয়েল এবং তার কর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং জুয়েল এর তৈরী কাউন্টারটি ভেঙে চুরে গুড়িয়ে দেয়। ওই হামলায় জুয়েল, সৌরভ, মামুন, ইমরান, শুভ, পারভেজ, রুবেলসহ ১০ জন আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। এদিকে সৌরভের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা। কেননা তার পায়ের নিচের অংশে অনেকগুলো জখম রয়েছে।

এ ব্যাপারে যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম জুয়েল বলেন, বরিশাল জেলা বাস মালিক গ্রুপের পক্ষ থেকে আমাকে পরিবহন কাউন্টারে বুকিং করার জন্য অনুমতি প্রদান করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে আমি গড়িয়ার পাড় এলাকায় একটি কাউন্টার স্থাপন করি। কিন্তু কাউন্টারের কার্যক্রম শুরু করার পরপরই কাশিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লিটন মোল্লার লোকজন রামদা, ছুড়ি নিয়ে ২০/২৫ জনের একটি দল আমার উপর হামলা চালায়। এ সময় আমার কাউন্টার ভেঙ্গে ফেলা হয়। এছাড়া আমার লোকজনকে কুপিয়ে জখম করে। তারা এখন বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বরিশাল জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক কিশোর কুমার দে বলেন, আপনাদের মাধ্যমে আমি ঘটনাটি জেনেছি। আমাকে এ বিষয় কেউ কিছু জানায়নি।

অভিযুক্ত কাশিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান লিটন মোল্লার কাছে ঘটনার বিষয় জানতে চেয়ে কল করলে তার ব্যবহৃত নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এয়ারপোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ লোকমান হোসেন জানান, ঘটনার সত্যতা যাচাই করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।